মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
পাতা

কার্যবিবরণী ও গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত সমুহ

                   

  চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলা পরিষদের এপ্রিল/২০১৩ মাসের সভার কার্যবিবরণী।

সভা নং ২২

স্থান    ঃ উপজেলা পরিষদ সভাকক্ষ

তারিখ ও সময়ঃ ২৮.০৪.২০১৩ খ্রিঃ, সকাল ১২.০০ ঘটিকা।

সভাপতিঃ জনাব মোঃ আসাদুল হক বিশ্বাস

চেয়ারম্যান, উপজেলা পরিষদ,চুয়াডাঙ্গা সদর।

 উপস্থিত সদস্যবৃন্দঃ পরিশিষ্ট ’ক

সভাপতি সভায় সকল সম্মানীত সদস্যকে স্বাগত জানান। অতঃপর সভাপতির অনুমতিক্রমে উপজেলা নির্বাহী অফিসার জনাব মোঃ আবুল আমিন আলোচ্যসূচি অনুযায়ী সভার কাজ শুরম্ন করেন।

  সভার আলোচনা ও সিদ্ধান্তঃ

আলোচনা

সিদ্ধান্ত

বাসত্মবায়নে

১। গত ফেব্রম্নয়ারী/২০১২ মাসের সভার কার্যবিবরণী সভায় পাঠ করা হয় ।

সঠিকভাবে লিপিবদ্ধ হয়েছে মর্মে  সর্ব সম্মতিক্রমে দৃঢ়ীকরণ করা হয়।

-

২। উপজেলা কৃষি বিভাগীয় কার্যক্রমঃ

 সভায় উপজেলা কৃষি অফিসার  জানান যে, তার দপ্তরের কার্যক্রম স্বাভাবিক।তিনি বলেন বোরো মওসুম প্রায় শেষ তাই কৃষকদের বিলম্ব না করে ধান লাল হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে তা কর্তন করে ঘরে তোলার পরামর্শ দেন। এছাড়াও তিনি কৃষি উপকরণ সুষ্ঠভাবে বিতরণ সম্পন্ন করতে পারায় সকলকে ধন্যবাদ দেন। তিনি বলেন,প্রত্যেক ইউনিয়ন থেকে তালিকা প্রস্ত্তত করে সে অনুযায়ী কৃষকদের মাঝে সারও বীজ বিতরণ করা হয়।

ক।গুটি ইউরিয়া ব্যবহারে কৃষকদের মাঝে সচেতনতা বাড়াতে হবে।

 

খ) কৃষি উপকরণ বিতরণকালে স্বচ্ছতা নিশ্চিত করতে হবে।

 

উপজেলাকৃষি অফিসার

 

 

 

 

৩। উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগীয় কার্যক্রমঃ

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পঃপঃ কর্মকর্তা, সভায় অনুপস্থিত থাকায় উক্ত দপ্তরের কার্যক্রম সম্পর্কে কোন তথ্য পাওয়া যায়নি।

 

 উপজেলা পরিষদেও মাসিক সভায়  নিয়মিত উপস্থিত  থাকার জন্য অনুরোধ করা হয়।

ক। সিভিল সার্জন

খ।  উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা

গ) সকল ইউপি চেয়ারম্যান

৪। উপজেলা প্রাণি সম্পদ বিভাগঃ

   উপজেলা প্রাণি সম্পদ কর্মকর্তা বলেন যে, তার বিভাগীয় কার্যক্রম স্বাভাবিক ভাবে চলছে।  তিনি জানান, তার দপ্তরের লোকবল সংকট সত্তেও বিভাগের কাজ ভাল ভাবে চলছে।তিনি অত্র উপজেলায় বার্ডফ্লু সংক্রমনের কথা সভায় উলেস্নখ করে বলেন,পার্শবর্তী আলমডাঙ্গা উপজেলায় ২ জন ব্যক্তি অসুস্থ পশুর মাংশ খেয়ে এ্যানথ্রাক্সে আক্রামত্ম হয়ে অসুস্থ হয়ে পড়েছে। এ জন্য তিনি সকলকে সচেতন থাকার জণ্য অনুরোধ করেন।তিনি আরো বলেন, মুরগীর ভাইরাস সংক্রমনের জন্য অস্বাস্থ্যকর ও নোংরা পরিবেশে মুরগী কেনাবেচাকে দায়ী করেন।তিনি মুরগী বিক্রির স্থানগুলো পরিপাটি করার ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য মণত্ম্রণালয় থেকে পত্র এসেছে বলে সভাকে অবহিত করেন।এব্যাপারে উপজেলা নির্বহী অফিসার অত্র উপজেলার কতগুলো স্থানে মুরগী বিক্রি করা হয় তার একটি তালিকা তৈরির জন্য সংশিস্নষ্ট দপ্তর প্রধানকে পরামর্শ দেন।অত্র উপজেলার সম্মানিত চেয়ারম্যান,একটি নির্দিষ্ট স্থান পরিপাটি করে সেখানে মুরগী বিক্রি করলে এ ভাইরাসের সংক্রমন থেকে রক্ষ পাওয়া যেতে পারে বলে সভায় মত প্রকাশ করেন।

ক) সকল মুরগী ফার্মে তদারকি জোরদার করতে হবে।

 

খ)কতগুলো জায়গায় মুরগী বিক্রি হয় তার একটি তালিকা তৈরি করতে হবে।

উপজেলা প্রাণি সম্পদ অফিসার।

 

৫। উপজেলা মৎস্য বিভাগঃ  উপজেলা মৎস্য অফিসার জানান, তার দপ্তরের কার্যক্রম স্বাভাবিক। তিনি  সভায় কার্যক্রমের উপর অগ্রগতির প্রতিবেদন দাখিল করেন । (পরিশিষ্ট’খ’

 ক) ঋণ আদায়ের ধারা অব্যাহত রাখতে হবে।

উপজেলা মৎস্য অফিসার

৬। উপজেলা প্রকৌশল বিভাগীয় কার্যক্রমঃ

উপজেলা প্রকৌশলী জানান, তার দপ্তরের কর্যক্রম স্বাভাবিক ।

তিনি  সভায় কার্যক্রমের উপর অগ্রগতির প্রতিবেদন দাখিল করেন । (পরিশিষ্ট’খ’

ক) বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচি সঠিকভাবে বাসত্মবায়ন করতে হবে।

উপজেলা প্রকৌশলী।

 

৭। উপজেলা শিক্ষা অফিসার জানান, তার দপ্তরের কর্যক্রম স্বাভাবিক ।

তিনি  সভায় কার্যক্রমের উপর অগ্রগতির প্রতিবেদন দাখিল করেন । (পরিশিষ্ট’খ’

ক) । সভার কমপক্ষে এক সপ্তাহ পূর্বে কার্যপত্র প্রেরণ করতে হবে।

উপজেলা শিক্ষা অফিসার

৮।  উপজেলা সমাজ সেবা বিভাগঃ ।

উপজেলা সমাজ সেবা অফিসার জানান যে, তার বিভাগীয় কার্যক্রম স্বাভাবিকভাবে চলছে। তিনি সভায় তার দপ্তরের কার্যক্রমের উপর অগ্রগতির প্রতিবেদন দাখিল করেন । (পরিশিষ্ট’খ’

ক) । ঋণ আদায়ের হার বাড়াতে হবে।

উপজেলা সমাজ সেবা অফিসার

৯। উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা বিভাগঃ

উপজেলা  পরিবার পরিকল্পনা অফিসার জানান, তিনি  সভায় কার্যক্রমের উপর অগ্রগতির প্রতিবেদন দাখিল করেন । (পরিশিষ্ট’খ’

ক। অগ্রগতির ধারা অব্যাহত রাখতে হবে।

উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা অফিসার

১০। যুব উন্নয়নঃকার্যক্রম স্বাভাবিক। ঋণ আদায় চলছে। তিনি  সভায় কার্যক্রমের উপর অগ্রগতির প্রতিবেদন দাখিল করেন । (পরিশিষ্ট’খ’

ক)শতভাগ আদায়ের এ ধারা অব্যাহত রাখতেহবে।

 

উপজেলা যুব উন্নয়ন অফিসার

১১। পলস্নী উন্নয়নঃ  সভায় উপজেলা পলস্নী  উন্নয়ন অফিসার জানান,তার দপ্তরে কার্যক্রম স্বাভাবিক তিনি  সভায় কার্যক্রমের উপর অগ্রগতির প্রতিবেদন দাখিল করেন । (পরিশিষ্ট’খ’

ক) সঞ্চয় বৃদ্ধি করতে হবে এবং আদায় বাড়াতে হবে।

 

ক। উপজেলা পলস্নী  উন্নয়ন অফিসার

 

১২। মাধ্যমিক শিক্ষাঃ উপজেলা শিক্ষা অফিসার  জানান, তাঁর দপ্তরের কার্যক্রম স্বাভাবিক  । তিনি  সভায় কার্যক্রমের উপর অগ্রগতির প্রতিবেদন দাখিল করেন ।

কারিকুলাম অনুযায়ীপাঠদান নিশ্চিত করতে হবে।

উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার

১৩।সমবায়ঃ   উপজেলা সমবায় অফিসার জানান তার দপ্তরের কার্যক্রম স্বাভাবিক ।  তিনি  সভায় কার্যক্রমের উপর অগ্রগতির প্রতিবেদন দাখিল করেন ।

ক) আশ্রয়ণ প্রকল্প সমূহে ঋণ আদায় র্কাযক্রম জোরদার করতে  হবে।

উপজেলা সমবায় অফিসার

১৪। উপজেলা নির্বাচন অফিসার সভায় অনুপস্থিত থাকায় উক্ত দপ্তরের কার্যক্রম সম্পর্কে কোন তথ্য পাওয়া যায়নি।

ক) উপজেলা পরিষদের মাসিক সভায় উপস্থিত নিশ্চিত  করতে হবে।

-

১৫। উপজেলা জনস্বাস্থ্য প্রকৌশলী দপ্তর। সভায় উপ-সহকারি প্রকৌশলী জনস্বাস্থ্য জানান তার দপ্তরের কার্যক্রম স্বাভাবিক। ।  তিনি  সভায় কার্যক্রমের উপর অগ্রগতির প্রতিবেদন দাখিল করেন । (পরিশিষ্ট’খ’

 

ক) টিউবওয়েল স্থাপনের সময় তা আর্সেনিক মুক্ত হয়েছে কিনা তা নিশ্চিত করতে হবে।

 

উপসহকারী প্রকৌশলী (জনস্বাস্থ্য)

১৬।উপজেলা খাদ্য দপ্তরঃ উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক জানান, তার দপ্তরের কার্যক্রম স্বাভাবিক ভাবে চলছে।  তিনি  সভায় কার্যক্রমের উপর অগ্রগতির প্রতিবেদন দাখিল করেন । (পরিশিষ্ট’খ’

ক)লক্ষমাত্রা অর্জনের প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করতে হবে।

উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক।

১৭।উপজেলা প্রকল্প কর্মকর্তা (পজিপ) সভায় জানান, তার দপ্তরের কার্যক্রম স্বাভাবিক ভাবে চলছে। ।  তিনি  সভায় কার্যক্রমের উপর অগ্রগতির প্রতিবেদন দাখিল করেন । (পরিশিষ্ট’খ’

ক) চলমান কার্যক্রম সুষ্ঠভাবে তদারকির মাধ্যমে সফল করতে হবে।

প্রকল্পকর্মকর্তা (পজিপ)

১৮। উপজেলা মহিলা বিষয়ক দপ্তরঃ

     উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা জানান,তার দপ্তরের কার্যক্রম স্বভাবিক ভাবে চলছে। তিনি  সভায়

কার্যক্রমের উপর অগ্রগতির প্রতিবেদন দাখিল করেন।

ক) সকল ভাতা বিতরনের কাজ যথাসময়ে সম্পন্ন করতে হবে।

উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা।

১৯। উপজেলা পরিসংখ্যান অফিসঃ

     উপজেলা পরিসংখ্যান অফিসার জনান যে,তার দপ্তরের কার্যক্রম স্বাভাবিক ভাবে চলছে।  তিনি  সভায় কার্যক্রমের উপর অগ্রগতির প্রতিবেদন দাখিল করেন

ক) বিভাগীয় কাজের ধারা অব্যাহত রাখতে হবে।

 

২০। উপজেলা আনসার ও ভিডিপিঃ সভায় আনসার ভিডিপি কর্মকর্তা অনুপস্থিত থাকায়  এ দপ্তরের কোন তথ্য পাওয়া গেল না। এ বিষয়ে সভায় ক্ষোভ প্রকাশ করা হয়। 

ক) সভায় উপস্থিত থাকার অনুরোধ করা হয়।

সংশিস্নষ্ট বিভাগীয় কর্মকর্তা

২১। জঙ্গীবাদ/ সন্ত্রাসবাদ এর কুফল সম্পর্কে উদ্বুদ্ধকরণঃ

       এ উপজেলায় আলোচ্য মাসে কোন জঙ্গী তৎপরতা পরিলক্ষিত হয়নি। ইউপি চেয়ারম্যানগণ জানান যে, জঙ্গীবাদের কুফল সম্পর্কে মসজিদে জুম্মার দিন খুৎবার সময় আলোচনা করা হয়ে থাকে। এ ছাড়া ইউনিয়ন পরিষদে অনুষ্ঠিত সভা সমুহেও বিষয়টির ওপর আলোচনা করা হয়ে থাকে। 

কোথাও কোন জঙ্গী তৎপরতা পরিলক্ষিত হলে নিকটস্থ আইন প্রয়োগকারী  সংস্থাকে তাৎক্ষণিক ভাবে অবহিত করতে হবে

ইউপি চেয়ারম্যান/ স্থানীয় জনপ্রতিনিধি।

২২। ইউনিয়ন তথ্য ও সেবা কেন্দ্রঃ

এ উপজেলা ৭টি ইউনিয়ন তথ্য ও সেবা কেন্দ্র সম্পর্কে আলোচনা হয়। ইতোমধ্যে ইউআইএসসিগুলোতে  বিভিন্ন সেবা প্রদান করা হয়ে থাকে। সভায় ইউএসসি থেকে প্রদত্ত সেবা গ্রহণের জন্য জনসাধারণকে উদ্বুদ্ধ করতেসকল ইউপি চেয়ারম্যানকে অনুরোধ জানানো হয়।

ইউআইএসসির দৈনন্দিন কার্যক্রম এর উপর নিয়মিত বস্নগে তথ্য সরবরাহ করতে হবে এবং মনিটরিং টুল্স আপডেটেড করতে হবে।

ইউ,পিচেয়ারম্যান (সকল)

 

২৩। সভায় উপজেলা নির্বাহী অফিসার জানান যে,  অত্র উপজেলায় বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচীর আওতায় ৪(চার) কিসিত্মতে বরাদ্দ প্রাপ্ত অর্থে গৃহীত প্রকল্প সমূহ বাসত্মবায়নের নিমিত্ত টেন্ডারের মাধ্যমে নিয়োগের প্রক্রিয়া চলছে। অচিরেই প্রকল্পের কাজ শুরম্ন করা হবে।

নির্মান/ মেরামত কাজ সূষ্ঠভাবে সম্পাদনের জন্য সকলের সহযোগিতা কামনা করেন।

২। উপজেলা নির্বাহী অফিসার

৩। উপজেলা প্রকৌশলী

২৪।     হাট বাজার ইজারা সংক্রামত্মঃ

                          সভায়, উপজেলা নির্বাহী অফিসার জানান যে, অত্র উপজেলার আওতাধীন ২২ টি সাপ্তাহিক হাট বাংলা ১৪২০ সনে জন্য ইজারা বিক্রয়ের নিমিত্ত দরপত্র  আহবান করা হলে মোট ১৮ টি হাটের দরপত্র পাওয়া যায় এবং সর্বোচ্চ দরদাতাদের মধ্যে উক্ত হাট গুলি সর্বোচ্চ মূল্যে সরকারি বিধিমতে ইজারা প্রদান  করা হয়েছে। নিমণবর্ণিত  অপর ৪টি হাটের জন্য পর পর ৩ বার দরপত্র আহবান করার  পরও কোন দরদাতা না পাওয়ায় ১লা বৈশাখ হতে খাস আদায়ের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।

ক্রমিক নং

হাটের নাম

বিগত ৩ বছরের গড় মুল্য/সরকারী মূল্য

 মমত্মব্য

নীলমনিগজ্ঞ সাপ্তাহিক হাট

৮,৮৫,৫০০.০০

পর পর ৩বার দরপত্র আহবান করার পর ও কোন দরপত্র পাওয়া যায়নি

ভুলটিয়া সাপ্তাহিক হাট

৫,৮০৪.০০

  ঐ

খাড়াগোদা -                     

৩,৯৬০.০০

  ঐ

কুশোডাঙ্গা

৮,১৩৪.০০

  ঐ

 

            চেয়ারম্যান উপজেলা পরিষদ,ইউপি চেয়ারম্যানগণ ও অন্যান্য সদস্যগণ সভায় হাটগুলির ইজারা না হওয়ার বিষয়টির উপর বিসত্মারিত আলোচনা ও মতামত ব্যক্ত করেন । সভায়  হাটগুলির জন্য আগ্রহী দরদাতা না পাওয়ার কারণ হিসাবে নিমণবর্ণিত বিষয়গুলি চিহ্নিত করা হয়ঃ

১।   নীলমনিগঞ্জ হাটঃ এ হাট টি মূলত পানের হাট এবং পান বেচাকেনার উপর নির্ভরশীল। এলাকায় পান চাষ কমে যাওয়ায় এবং এ এলাকার কাথুলী ও বলেশ্বারপুরে পানের  হাট বসায়  এ হাটে চাষীরা তাদের পান নিয়ে আসেন না, এ ছাড়া চড়া মুল্যে এ হাট ডাকায় ইজাদার লাভ করতে না পারায় কেউ সরকার নির্ধারিত মুল্যে এ হাট ডাকতে আগ্রহী হয়নি। তবে চলতি বছর এ মৌসুমে পানের সরবরাহ ভালো। তাই এ হাটের জন্য পুনরায় দরপত্র আহবান  করা হলে আগ্রহী দরদাতা পাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে মর্মে  চেয়ারম্যান উপজেলা পরিষদ সহ সদস্যবৃন্দ মত প্রকাশ করেন।

২।  ভুলটিয়া হাটঃ হাটটি মূলত সড়ক ও জনপথের জায়গায় অবস্থিত। এ হাটের কোন নিজস্ব জমি নেই। আয়তনে ছোট হওয়ায় বিপণন ব্যবস্থা  শক্তিশালী নয় বিধায় এ হাটে পণ্য সরবরাহ কম। ফলে হাটে পণ্যের বেচাকেনা কম হওয়ায় ইজারা নিতে কোন আগ্রহী দরদাতা পাওয়া যাচ্ছে না মর্মে সভায় মত প্রকাশ করা হয়। 

৩।  খাড়াগোদা  হাটঃ  হাটটি .০৮০০ একর ভিপি সম্পত্তির উপর অবস্থিত।  অত্যমত্ম ÿুদ্র আয়তনের একটি হাট। তোহা বাজারের জায়গা নেই বললেই চলে। সরকারি রাসত্মার দু ধারে নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্য যেমন- শাক শব্জী ইত্যাদি রেখে গ্রাম্যসাধারণ এ সকল বিক্রী করেন। পণ্য সরবরাহ কম হওয়ায় টোল আদায় কম হয় বিধায় ইজারা নিতে কোন আগ্রহী দরদাতা পাওয়া যাচ্ছে না মর্মে সভায় মত প্রকাশ করা হয়।

৪। কুশোডাঙ্গা হাটঃ ÿুদ্র আয়তনের এ হাটটি পদ্মবিলা ইউনিয়নের কুশোডাঙ্গা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় সংলগ্ন সরকারি রাসত্মার দু ধারে বসে। শুধুমাত্র মিষ্টি কুমড়ার মৌসুমে বছরে দু থেকে তিন মাস হাটটিতে পণ্য ও লোক সমাগম হয়। বছরের অন্যান্য সময় বেচাকেনা উলেস্নখযোগ্য না হওয়ায় ইজারা নিতে কোন আগ্রহী দরদাতা পাওয়া যাচ্ছে না মর্মে সভায় মত প্রকাশ করা হয়। 

      উলেস্নখ্য যে,  সভায় চেয়ারম্যান, উপজেলা পরিষদ সহ সদস্যবৃন্দ জানান যে, উলিস্নখিত ০৪(চার) টি হাট জেলা প্রশাসক মহোদয়ের অনুমতি ক্রমে পুনঃ ইজারা বিজ্ঞপ্তি  দেয়া হলে  সকলের সম্মিলিত প্রচেষ্টায় আগ্রহী দরদাতা পাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে ।

        সভায় সদস্যবৃন্দ জানান যে, উলিস্নখিত ০৪(চার) টি হাট জেলা প্রশাসক মহোদয়ের অনুমতি ক্রমে পুনঃ ইজারা বিজ্ঞপ্তি  দেয়া হলে  সকলের সম্মিলিত প্রচেষ্টায় আগ্রহী দরদাতা পাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে ।

 

২৫। উপজেলা পরিষদের বাসাবাড়ীঃ

       সভায় উপজেলা নির্বাহী অফিসার জানান যে,  চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলা পরিষদের আবাসিক  এলাকার বাসাবাড়ী গুলি ইতোপুর্বে পরীক্ষা নিরীক্ষা পুর্বক বসবাসের অযোগ্য এবং  মেরামতের অযোগ্য বলে ঘোষনা করা হয়েছে। তিনি আরো জনানা বাসাগুলি খালী পড়ে থাকায়  উপজেলা পরিষদের কতিপয় কর্মচারী স্বল্প টাকায় ভাড়া দিয়ে বসবাস করছে । এ সকল  বসবাসের অযোগ্য বাসভবনে বসবাস করা আদৌ সমিচিন নয় কারণ যে কোন সময় বড় ধরণের বিপর্যয় ঘটার সম্ভাবনা রয়েছে বিধায়  এ সকল  বাসভবন খালী  করে সীলগালা করার  বিষয়ে তিনি মত প্রকাশ করেন। 

সভায়  চেয়ারম্যান উপজেলা পরিষদ সহ সকল সদস্য বিষয়টির উপর সভায় বিসত্মারিত আলোচনা করেন। আলোচনার পর  বসবাসের অযোগ্য ও মেরামত অযোগ্য বাসাগুলিতে বসবাসকারীদের বরাদ্দ আদেশ  আগামী ০১.০৫.২০১৩  তারিখ হতে বাতিল করার সিদ্ধামত্ম গ্রহণ করা হয় এবং বসবাসকারীদের কে আগামী ০৭.০৫.,২০১৩ তারিখের মধ্যে  বাসা পরিত্যাগের জন্য নোটিশ জারী করে উক্ত সময়সীমার পর বাসভবনগুলি সীলগালা  করার  সিদ্ধামত্ম গৃহীত হয়।

 

২৬।  উপজেলা পরিষদের ২০১৩-১৪ অর্থ বছরের বাজেটঃ

 

     সভায় অত্র উপজেলা পরিষদের ২০১৩-১৪ অর্থ বছরের প্রসত্মাবিত বাজেট সভায় উপস্থাপন করা হয়। প্রসত্মাবিত বাজেটের উপর সভায় বিসত্মারিত আলোচনা করা হয় । আলোচনামেত্ম প্রসত্মাবিত বাজেট সভায় অনুমোদন করা হয়। এবং অনুমোদিত বাজেট স্থানীয় সরকার বিভাগে  প্রেরণের সিদ্ধামত্ম গ্রহণ করা হয়।

      

সভায় উপজেলা নির্বার্হী অফিসার জানান যে, অত্র উপজেলা পরিষদের অধিকাংশ দপ্তরেই প্রহরী রয়েছে। কিন্তু রাতে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের দপ্তরের প্রহরীরা শুধুমাত্র নিয়মিত দায়িত্বপালন করে থাকেন। অন্যান্য দপ্তরের প্রহরীরা রাতে নিয়মিত দায়িত্বপালন করে  না। তিনি আরো জানান রাত ১০.০০ টার পরে পরিদর্শনে দেখা গেছে একমাত্র উপজেলা নির্বাহী অফিসারের দপ্তরের প্রহরী ব্যতীত অন্য কোন প্রহরী কে দায়িত্ব পালন করতে দেখা যায়নি যা অতীব দুঃখজনক ও কর্তব্য অবহেলার সামীল। চলমান রাজনৈতিক অস্থিরতা ও সহিংস আইনশৃংখলা পরিস্থিতিতে সকল দপ্তরের প্রহরীগণকে আব্যশ্যিকভাবে রাতে প্রহরায় নিয়োজিত জন্য সভায় উপজেলা নির্বাহী অফিসার সভায় মত প্রকাশ করেন।

এ বিষয়ে সভায় বিসত্মারিত আলোচনা করা হয়। আলোচনামেত্ম বিষয়টি গুরম্নত্ব সহকারে দেখভাল করার জন্য সংশিস্নষ্ট কর্মকর্তাকে অনুরোধ করা হয়। এরপরও কোন দুর্ঘটনা ঘটে গেলে এর জন্য উপজেলা নির্বাহী অফিসারের দপ্তরের নৈশপ্রহরী দায়ী  থাকবেনা মর্মে সভায় মতপ্রকাশ করা হয়। এহেন কর্তব্যে অবহেলা জনিত কারণে অন্যান্য দপ্তরে কোন ধরণের চুরি বা নেতিবাচক ঘটনা ঘটলে তা সংশিস্নষ্ট দপ্তরের প্রধান বা সেই দপ্তরের প্রহরীর উপর বর্তাবে।

সভাপতি আলোচনায় সক্রিয় অংশ গ্রহণের জন্য সকলকে ধন্যবাদ জানান। তিনি  আলোচিত বিষয়গুলির ওপর পুনঃ আলোকপাত করে বলেন যে, আমাদেরকে দায়িত্ব পালনে আরো যত্নবশীল হতে হবে। গৃহীত সিদ্ধামত্ম বাসত্মবায়নের লক্ষ্যে কার্যকরী পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য সংশিস্নষ্ট সকলকে তিনি অনুরোধ জানান।

             আর কোন আলোচনা না থাকায় সভাপতি কর্তৃক সকলকে ধন্যবাদ দিয়ে সভার সমাপ্তি ঘোষণা করা হয়।

 

 

 
 

     (মোঃ আসাদুল হক বিশ্বাস)

          চেয়ারম্যান, উপজেলা  পরিষদ

   ও

      সভাপতি

          উপজেলা পরিষদ,চুয়াডাঙ্গা সদর।

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার

উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কার্যালয়

চুয়াডাঙ্গা সদর, চুয়াডাঙ্গা।

www.unochuadanga.gov.bd

 

স্মারক নংঃ .০৫.৪৪.১৮২৩.০০০.০৬.০০২. ১৩.                         তারিখঃ      এপ্রিল-২০১৩ খ্রিঃ।

 

অনুলিপি সদয় অবগতি / অবগতি ও প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য প্রেরিত হলঃ-

১।         মাননীয় সংসদ সদস্য,চুয়াডাঙ্গা-১/২ ।   

২।         সচিব, স্থানীয় সরকার,পল­ী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়, বাংলাদেশ সচিবালয়, ঢাকা।

৩।         জেলা প্রশাসক, চুয়াডাঙ্গা।

অনুলিপি অবগতি ও প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য প্রেরিত হলঃ-

৪।         উপজেলা নির্বাহী অফিসার, চুয়াডাঙ্গা সদর ।

৫-৬।      ভাইস চেয়ারম্যান, উপজেলা পরিষদ, চুয়াডাঙ্গা সদর, চুয়াডাঙ্গা।         

৭।         উপজেলা..................................................অফিসার , চুয়াডাঙ্গা সদর।

৮।         চেয়ারম্যান, আলুকদিয়া, মোমিনপুর,কুতুবপুর,শংকরচন্দ্র,বেগমপুর,তিতুদহ,পদ্মবিলা ইউ পি।

 

(মোঃ আবুল আমিন)

উপজেলা নির্বাহী অফিসার

চুয়াডাঙ্গা সদর, চুয়াডাঙ্গা।

টেলিফোন নং-০৭৬১-৬৩১১৫

 

 

৯।         জনাব...................................................................................   ।